বাংলাদেশে করোনাভাইরাস: লকডাউনে বেড়েছে আর্থিক কষ্ট, কিন্তু সংক্রমণ ঠেকাতে কতটা কাজে লেগেছে?

মাত্র দুই সপ্তাহরে মধ্যেই বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি বেশ দ্রুত বদলে যেতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে এরই মধ্যে পুরো দেশকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছে দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ।

সংক্রমণ ঠেকাতে সরকার ঘোষিত ‘সাধারণ ছুটি’ তিন সপ্তাহ অতিবাহিত হওয়ার পরে পুরো দেশকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হলো।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের অনেকে মনে করেন, বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের বিস্তার এখনো পুরোমাত্রায় শুরু হয়নি, যদিও আক্রান্তের সংখ্যা শুক্রবার পর্যন্ত ১৮৩৮জন।বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম রোগী সনাক্ত হবার ১৭ দিন পরে সরকার সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে। এর মূল উদ্দেশ্য ছিল সংক্রমণ ঠেকানো।

কিন্তু গত এক এক সপ্তাহের পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে, আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা দুটোই বেশ দ্রুত গতিতে বাড়ছে।

এমন অবস্থায় আগামী ২৫শে এপ্রিল পর্যন্ত বিধিনিষেধ বজায় থাকবে।

গ্রামাঞ্চলের কৃষক দিশেহারা

কিন্তু এরই মধ্যে বাংলাদেশের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ তাদের জীবন-জীবিকা নিয়ে রীতিমতো সংগ্রাম করছে। উৎপাদিত পণ্য বিক্রি করতে না পারায় গ্রামাঞ্চলের কৃষক এখন দিশেহারা।

মুন্সিগঞ্জের সবজি চাষি আখতার দেওয়ান বলছিলেন, বিক্রি নেই তাই উৎপাদিত সবজি মাঠেই পড়ে আছে।

“মাল বিক্রি করতে পারতেছি না। যদি ঢাকায় মাল পাঠাইতে না পারি,তাহলে মাঠ থেইকা সবজি তুলে লাভ কী?” মি: দেওয়ান বলেন।

একই অবস্থায় আছেন সাভারের রাজিয়া সুলতানা। তার ফার্মে উৎপাদিত দুধ মিষ্টির দোকানে বিক্রি হতো। লকডাউনের কারণে এসব দোকান বন্ধ থাকায় এখন রাজিয়া সুলতানার মাথায় হাত।

“দুধের কেজি যেখানে ৬০ টাকা ছিল, সেইটা এখন ৩০ টাকা নেমে আসছে,” বলছিলেন রাজিয় সুলতানা।

পৃথিবীর বহু দেশ এখন অর্থনীতির চেয়ে জনস্বাস্থ্যকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেকরোনা ভাইরাস শিগগির বিশ্ব থেকে চলে যাবে। কিন্তু বৈশ্বিক শৃঙ্খলা ফিরে পেতে সময় লাগবে কয়েক বছর। করোনা ভূমিকম্পের মতো আফটার শক দিয়ে বিশ্বকে স্থায়ীভাবে পুনর্নির্মাণ করবে। এ ক্ষেত্রে ছয়টি বড় নজিরবিহীন পরিবর্তন দেখবে পুরো বিশ্ব। বাসযোগ্য এ গ্রহে কী কী পরিবর্তন আসতে পারে #৩৯; বিশৃঙ্খলা তত্ত্ব#৩৯; দিয়ে সেটা বুঝিয়েছেন দুই ইন্ডিয়ান-আমেরিকান বিশেষজ্ঞ পারাং খান্না ও কারান খেমকা। তারা বলেছেন, বিশ্বের সরকার, অর্থনীতি ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরতে কয়েক বছর লেগে যাবে। পরবর্তী তিন থেকে চার বছর আমাদের মনে হবে কোভিড-১৯ ছিল ভয়ংকর ঝড়ের আগে বিদ্যুৎ চমকানি। বিশ্বে সম্ভাব্য ছয়টি পরিবর্তনের কথা উল্লেখ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

Published by Md Ashraf hossain

We are connected the World

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

Create your website with WordPress.com
Get started
%d bloggers like this: